এই মাসে সূর্য মেষ রাশিতে স্থানান্তরিত হয় এবং বিভিন্ন পঞ্জিকা অনুযায়ী নতুন বছর শুরু হয়। এই মাসে কেশব ব্রত শুরু হয় বিধায় এক মাস ইন্দ্রিয়সমূহকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে হয়, ভূমিতে শয়ন করতে হয়, প্রতিদিন নদীতে দুইবার স্নান করতে হয়, ভগবানের পূজা করে ব্রাহ্মণদের অন্ন, বস্ত্র, তিল, চিনি এবং স্বর্ণ দান করতে হয়। যদি কেউ এই মাসে ভগবান শ্রীমধুসূদনের পূজা করে, তাহলে সে এক বছর পূজার্চনার ফল লাভ করে।

Image may contain: plant, flower and indoor
তুলসীতে জলদান


কেশব ব্রত চলাকালীন একটি ছিদ্রসমেত পাত্র জলভর্তি করে তুলসী এবং শালগ্রাম শিলার উপরে ঝুলিয়ে রাখতে হয়। যেহেতু বছরের এই সময়টিতে উওর গোলার্ধ উষ্ণতর হতে থাকে, তাই ফোঁটায় ফোঁটায় ঝরে পড়া শীতল জলধারা শালগ্রামের সন্তুষ্টিবিধান করে।

Image may contain: 1 person


//pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

কিভাবে তা করতে হয়?
একটি ছিদ্রসমেত একটি পাত্র বা কলসী জলভর্তি করে শালগ্রাম শিলার উপরে ঝুলিয়ে রাখুন এবং জলধারা পড়তে দিন। বিভিন্ন জায়গায়, কেউ কেউ এটি সহজতর করার জন্য কাঠামো তৈরি করে নেন, আবার কেউ শিকল বা দড়ি দিয়ে পাত্রটিকে ঝুলিয়ে রাখেন।
বর্তমানে উত্তর গোলার্ধ উষ্ণ হওয়ায় তুলসী দেবীর বৃদ্ধিসাধনে এই শীতল জলধারা একটি আশীর্বাদরূপক অপরিহার্য উপাদান হিসেবে কাজ করে।
জয় তুলসী মহারাণী!

Advertisements